অনলাইনে ইনকামের চৌদ্দগুষ্টির অষ্টম পর্ব

আসসালামু আলাইকুম,
এসে পড়লাম অনলাইনে ইনকামের চৌদ্দগুষ্টির অষ্টম পর্ব নিয়ে। 😜

এ 8 সংখ্যাটি নিয়ে পৃথিবীর নানা স্থানে নানা ধরনের কুসংস্কার বা বিশ্বাস আছে।

যেমন চীনারা বিশ্বাস করে 8 সংখ্যাটি দিয়ে সমগ্র পৃথিবী কে বোঝানো হয়েছে,😁😱
কিছু কিছু গোষ্ঠী 8 সংখ্যাটি কে ধন-দৌলত’ প্রাচুর্যের প্রতি-রূপ হিসেবে বিশ্বাস করে,🤑😉
যাইহোক কুসংস্কার বিশ্বাস ওগুলো ফেলে দিয়ে আসুন শুরু করি আমাদের আজকের গল্প কথা।

আজ কথা বলব আপওয়ার্ক এর হিস্টরি নিয়ে, যারা আগের পর্বগুলো পড়েন নি তাদেরকে বলব আগের পর্ব গুলো পড়ে নিন তাহলে ব্যাপার গুলো খুব সহজ হয়ে যাবে।

আগের পর্বগুলো পড়ার জন্য আমার টাইমলাইন কিংবা পেইজে একটু ঘুরাঘুরি করুন।

১৯৯৯ সালে যাত্রা শুরু হয় একটি ফ্রীল্যান্সার হায়ারিং প্লাটফর্ম যার নাম ছিল ইল্যান্স’,
তার বছর কয়েক পর 2003 সালে যাত্রা শুরু হয় আরেকটি বিখ্যাত ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম ওডেস্কের।

অনেকগুলো বছর সুনামের সাথে ব্যবসা করার পর 2013 সালের একেবারে শেষে ইলেন্স এবং ওডেস্ক ঘোষণা দেয় তারা তাদের ব্যবসা একসাথে করে নিচ্ছে অর্থাৎ ইলান্স এবং ওডেস্ক এক হয়ে যাচ্ছে।😊

2015 সালে ওডেস্ক এবং ইল্যান্স একসাথে হয়ে যাত্রা শুরু হয় আপওয়ার্ক এর,😊

বর্তমানে পৃথিবীর সবচাইতে জনপ্রিয় বিশেষ করে বাংলাদেশ অত্যন্ত জনপ্রিয় এই ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম

সর্বমোট 1 কোটি 20 লক্ষ ফ্রিল্যান্সার রেজিস্ট্রেশন করা আছে এই আপওয়ার্কে,
এবং প্রায় 50 লক্ষ ক্রেতা ক্লায়েন্ট রেজিস্টার করা আছে এই প্ল্যাটফর্মটিতে।😱

প্রতি বছর গড়ে 30 লক্ষ কাজ হয় এই প্ল্যাটফর্মটিতে, 😎
যা কিনা এ প্লাটফর্ম কে পৃথিবীর সর্ববৃহৎ অনলাইন মার্কেটপ্লেস হিসেবে তকমা দিয়েছে।

এক যুগেরও বেশি সময় আগে ওডেস্কে অ্যাকাউন্ট করেছিলাম আমি, এখনকার মতো এতো নিয়ম-কানুন ছিল না তখন। 😉

শুধুমাত্র একটি ইমেইল দিয়ে 10 মিনিটের কম সময়ে আমি আমার একাউন্ট ক্রিয়েট করেছিলাম,

আরও মজার ব্যাপার হচ্ছে অ্যাকাউন্ট করার সাথে সাথেই শুধু এপ্লাই বাটনে ক্লিক করে আর একটি ফরম ফিলাপ করার পর একটি পেওনিয়ার কার্ড হাতে পেয়ে যায় দিন বিশেক এর মাথায়।😂😂

আপওয়ার্ক নিয়ে যখন কথা বলছি, তখন একটি কথা না বললেই নয়।
আমার বয়স যে খুব বেশি তা কিন্তু না, আমি যে খুব কাছ পারি তাও কিন্তু না,
আবার আমি যে খুব ভালো মাপের একজন ফ্রিল্যান্সার সেরকম মোটেও না।🙂

কিন্তু কিছু জিনিস আমাকে খুব কষ্ট দেয়,
আপওয়ার্কে ক্লায়েন্ট রিকোয়েস্ট এ দেখি তারা স্পষ্ট করে উল্লেখ করে দেয়
“বাংলাদেশি পিপল আর নট অ্যালাউড”😑

কি পরিমান কষ্ট লাগে তখন তা বলে বুঝাতে পারব না।😢😢

কি এমন অপরাধ করেছি আমরা?
যার কারণে উন্নত বিশ্বের মানুষ গুলো এতটা ঘৃণা করে আমাদের?🤷‍♀️

হ্যাঁ আমরা দুধে ধোয়া তুলসী পাতা নই আমরা অনেক অনেক অনেক অপরাধ করেছি।😒

আমরা কাজ না জেনে আগে একাউন্ট তৈরি করি, তারপর সমান হারে ক্লায়েন্টদের রিকোয়েস্ট বিড করতে থাকি, দিন শেষে যদি ভাগ্যক্রমে কাজটি পেয়েও যান।

দক্ষতা না থাকার কারণে কাজটি হারান এবং হয়রানির শিকার হয়ে সেই লোকটি আর কখনোই কোন বাঙালির কভার লেটার কে বিশ্বাস করতে পারেনা।🤦‍♀️🤦‍♂️

ওকে অনেক হয়েছে ইমোশনাল কথা, এবার কাজের কথায় আসি।

আজ একখানা ইফতার পার্টিতে গিয়েছিলাম, জম্পেশ খেয়ে এখন হাফ-শাফ লাগছে।

তাই আজ আর লিখব না, কাল আপনাদের কে বলব আপওয়ার্ক এ কিভাবে কাজ পেতে হয় বা কি কি পদ্ধতি ব্যবহার করলে কাজ পাওয়াটা সহজ হয়ে যায়।😍

সেই পর্যন্ত সাথে থাকুন পাশে থাকুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here