অনেক দিন পরে, বইয়ের ভিড়ে ধুলোয় জড়ানো ডায়েরি পেলাম,
ধুলো মুছি আর ভাবি,লেখাগুলো চকচকে আছে – না কি ধূসর হয়ে গেছে!!

হয়তো পাতায় পাতায় স্মৃতির করিডরে বন্দী হয়ে রইলাম,
ধুলো মুছি আর ভাবি, লেখাগুলো চকচকে আছে -না কি ধূসর হয়ে গেছে!!

তুমি আমার মাঝে নেই, আছো পুরানো ডায়েরির প্রতিটা পাতার ভাঁজে।।

নদীর ধারে বসে যখন ভাবি, নদীর ওপারে কাশফুল দোলে,
স্মৃতিগুলো ডায়েরির পাতায় রেখে, নিদারুণ সংকোচ উপেক্ষা করে দূর থেকে বহুদূরে গেছো চলে।

সেই সুনিবিড় শান্ত স্রোতের ধারা আজও বয়ে যায়,
করুন সুর হৃদয়ের কান্না প্রানচঞ্চল তাড়া করে আজও বেড়ায়।

কৃত্তিম আলোর বন্যা আকাশের স্বগর্বে বিলায়,
ঐশ্বর্য সহজ -সরল হৃদয় তোমার প্রদীপ জ্বালয়।

একটা সময় আসে, আস্তে আস্তে দিন গুলো কেঁটে যেতে থাকে,
প্রতিক্ষার শূন্য হৃদয়ের উঠানে আশার আলোটুকু দেখে।

হয়তোবা আর আসবেনা গাঁয়ের মেঠোপথ পারি দিয়ে,
খোলা জানলায় বসে,লিখবেনা আর স্মৃতিগুলো মনের মাধুরি মিশিয়ে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here